সন্তান লাভের আশায় রাস্তায় শুয়ে মহিলারা, তাঁদের উপরে হেঁটে চলেছেন পুরোহিত, ওঝা! আজব প্রথা মেনে চলেছে ছত্তিশগড়ের মানুষ

0
94
সন্তান লাভের আশায় রাস্তায় শুয়ে মহিলারা, তাঁদের উপরে হেঁটে চলেছেন পুরোহিত, ওঝা! আজব প্রথা মেনে চলেছে ছত্তিশগড়ের মানুষ

#ছত্তিশগড়, সন্তান লাভের আশায় আজব সব প্রথা মেনে চলেছে ছত্তিশগড়ের ধামতারি জেলার কিছু মহিলারা। রাস্তায় উপুড় হয়ে শুয়ে পড়েছেন মহিলারা, তাঁদের উপর দিয়ে হেঁটে চলেছেন পুরোহিত, ওঝা।এভাবেই নাকি তারা সন্তান লাভ করবেন। এই ধরনের প্রথা বন্ধ করতে জোরদার প্রচার চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্যের মহিলা কমিশন।

রাজ্য মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন করুণাময়ী নায়েক জানিয়েছেন, এধরনের ঘটনাকে তাঁরা একেবারে অনুমোদন করেন না। এই ধরনের প্রথা বন্ধ করতে কমিশনের তরফে সচেনতামূলক কর্মসূচি নেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। এই ধরণের প্রথায় মহিলাদের যেকোনও প্রকার ক্ষতিও হতে পারে।তিনি জানান, “আমি কমিশনের কয়েকজন সদস্যের সঙ্গে শীঘ্রই এলাকা পরিদর্শনে যাব। ওখানকার মানুষ যাতে এই ধরনের রীতি পালন না করেন তা বোঝানোর চেষ্টা করব। কী করে ঈশ্বরের আশীর্বাদ পাওয়া যায়, তাও তাদের বলব। তবে কোনওভাবে যাতে তাদের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত না লাগে তাও মাথায় রাখব”।

উল্লেখ্য, ধামতারি জেলার অঙ্গারমতি দেবীর মন্দির। দীপাবলির পরে প্রথম শুক্রবার সেখানেই আয়োজন করা হয় এই বিশেষ প্রথার । বিয়ে হয়েছে অথচ ঘরে এখনও সন্তান আসেনি, এমন মহিলারা দেবতার আশীর্বাদ লাভের আশায় এরূপ মাটিতে উপুড় হয়ে শুইয়ে রাখা হয়। করোনা আবহে সেখানে কোনও সোশ্যাল ডিস্টেন্স মানতে দেখা যায়নি কাউকেই। মন্দিরের সামনে রাস্তায় চুল বিছিয়ে উপুড় হয়ে শুয়ে পড়েছিলেন প্রায় দুশোজন মহিলা। তাঁদের উপর দিয়ে হেঁটে চলেছেন পুরোহিত ও গ্রামের ওঝা। সেখানে মানুষের অন্ধ বিশ্বাস যে এইভাবেই তাঁরা সন্তান লাভ করতে সক্ষম হবেন। এই রীতি পালনে ৫২টি গ্রাম থেকে জড়ো হয়েছিলেন মহিলারা। মন্দিরের বাইরে এই রিরি সচক্ষে দেখতে ভিড় জমিয়েছিলেন কয়েকশো মানুষ।

Advertisement

Leave a Reply