‘এটাই তৃণমূলের শেষের শুরু’, শুভেন্দু অধিকারীর মন্ত্রিত্ব ত্যাগ প্রসঙ্গে মন্তব্য দিলীপ ঘোষের

0
108

#দিলীপ-ঘোষ: ‘এটাই তৃণমূলের শেষের শুরু,’ গোপালনগরের জনসভার মঞ্চ থেকে শুভেন্দু অধিকারীর মন্ত্রীত্বকে শুক্রবার এভাবেই ব্যাখ্যা করলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। শুধু তাই নয়, দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে দিলীপবাবুর পরামর্শ, শাসক দলের আক্রমণের শিকার হলে পাল্টা আক্রমণ করবেন। এদিন পুলিশের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগও তুলেছেন দিলীপ বাবু।

শুভেন্দু অধিকারী প্রসঙ্গে বিজেপি রাজ্য সভাপতির মন্তব্য, “তৃণমূলের অধিকাংশই দলের প্রতি বিরূপ। শুভেন্দুবাবু আগে একাধিকবার বলেছিলেন কাজ করতে পারছেন না, এবার দল ছাড়লেন। এটাই তৃণমূলের শেষের শুরু। এবার একে একে বিজেপিতে যোগ দেবেন তাবড় তাবড় নেতারা।” তবে শুভেন্দু বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন কি না, সেই বিষয়ে মুখ খোলেননি দিলীপ।

এদিন সভামঞ্চ থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন রাজ্য সরকারকে তুলোধুনো করে দিলীপ ঘোষ বলেন, “পশ্চিমবঙ্গকে সোনার বাংলা বানাব। ছেলেমেয়েদের ভবিষ্যৎ সুন্দর হবে, সুরক্ষিত হবে। যারা পশ্চিমবঙ্গকে পশ্চিমবাংলাদেশ বানাতে চাইছেন তাঁদের উদ্দেশ্য কোনওদিনই সফল হবে না।” ঠিক তারপরেই তাঁর মন্তব্য, “ছোটলোকেদের সঙ্গে ভদ্র ব্যবহার করা যায় না। ওদের সঙ্গে ওদের মতোই ব্যবহার করতে হয়। যারা আইন বোঝেনা, সংবিধান বোঝে না তাঁদের সঙ্গে কোনও ভাল কথা হবে না।”

Advertisement

এদিন জনসভা থেকে মে মাসের পর তৃণমূল কংগ্রেস এবং পুলিশ সকলেরই হিসেব নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি। উপস্থিত কর্মী-সমর্থকদের উদ্দেশ্যে দিলীপ ঘোষের পরামর্শ, “খালি হাতে বাড়ি থেকে বের হবেন না। মার খেয়ে ফোনও করবেন না। না পুলিশে যাব না হাসপাতালে। দুটো পড়লে চারটে দিয়ে আসবেন। আমরা আর পুলিশে যাব না। ওরা যাব। পুলিশ একটা এফআইআর করতে গেলেও বিজেপিকে হেনস্তা করে। তাই আর পুলিশে নয়। এবার আপনারা পাল্টা দিন, বাকিটা আমি দেখে নেব।”

Leave a Reply