আজ রাজ্যজুড়ে কেন্দ্রীয় শ্রমিক সংগঠনগুলির ডাকে চলছে সাধারণ ধর্মঘট, একনজরে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত

0
184

#ধর্মঘট:  আজ রাজ্যজুড়ে চলছে সাধারণ ধর্মঘট। কলকাতার ধর্মতলা, কোচবিহার, ব্যারাকপুর, সিউড়িতে বিক্ষোভ দেখায় বাম ও কংগ্রেসের শ্রমিক সংগঠনগুলি। কেন্দ্রীয় শ্রমিক সংগঠনগুলির ডাকা ধর্মঘটের সমর্থনে কোনো কোনো জায়গা অবরোধ করা হয়েছে। শিয়ালদায় ব্যাহত হয়েছে লোকাল ট্রেন পরিষেবা। বেলা বাড়ার সাথে সাথে বাড়ছে ধর্মঘটের প্রভাব।

 

চলতি বছর ঘুরলেই বিধানসভা নির্বাচন বাংলায়। আর বিধানসভা ভোটের আগে ধর্মঘটকে সামনে রেখে বৃহস্পতিবার নিজেদের শক্তি পরীক্ষায় নেমেছে বাম এবং কংগ্রেস। কেন্দ্রের শ্রমিক-সহ বিভিন্ন নীতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ এবং সাত দফা দাবি-সহ ২৪ ঘণ্টার ধর্মঘট করা হচ্ছে দেশজুড়ে। ভারতীয় মজদুর সংঘ ছাড়া ১০ টি কেন্দ্রীয় শ্রমিক সংগঠন সেই ধর্মঘটে সামিল হয়েছে। ইস্যুগুলিতে সমর্থন জানালেও ধর্মঘটের বিরোধিতা করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। সরকারি কর্মচারীদের উপস্থিতি নিয়ে কড়া নির্দেশিকা জারি করেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার।তবে এই ধর্মঘটের বিরোধিতা করছে বিজেপি।

Advertisement

ধর্মঘটে সামিল হয়েছে ‘অল ইন্ডিয়া ব্যাঙ্ক এমপ্লয়িস অ্যাসোসিয়েশন’। স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া এবং ইন্ডিয়ান ওভারসিজ ব্যাঙ্ক ছাড়া অধিকাংশ ব্যাঙ্কের কর্মী-অফিসাররা সেই ইউনিয়নের ছাতার তলায় আছে।

একনজরে দেখা যাক ধর্মঘটে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের ছবি-

১. কোচবিহারে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ দেখানো হচ্ছে। রাস্তা অবরোধ করা হয়েছে। বাস লক্ষ্য করে ছোড়া হয়েছে পাথর।

২. ব্যারাকপুরেও টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ দেখানো হচ্ছে।

৩. সিউড়িতে সকাল থেকেই ধর্মঘটের সমর্থনে মিছিল বের করেছে  বাম এবং কংগ্রেস। সিউড়ি বাসস্ট্যান্ডে বিক্ষোভ দেখান কর্মচারীরা, বন্ধ করে দেওয়া হয় বাস চলাচল।

৪. যাদবপুরে সকাল ছ’টা থেকেই শুরু হয়েছে বামপন্থীদের মিছিল। যাদবপুর এইট-বি বাসস্ট্যান্ড থেকে সুলেখা পর্যন্ত করা হয় এই মিছিল। আপাতত কোনও অবরোধ করা হয়নি।

৫. শিয়ালদা মেন লাইনে মোটের উপর স্বাভাবিকভাবে ট্রেন চলাচল করছে। ইচ্ছাপুর ট্রেন আটকে দিয়েছেন বাম কর্মী-সমর্থকরা। দক্ষিণ শাখায় ব্যাহত হয়েছে পরিষেবা। ডায়মন্ড হারবার লাইনের একাধিক জায়গায় ওভারহেড তারে কলাগাছ ফেলে দেওয়ার এবং বিক্ষোভের খবর মিলেছে। সুভাষগ্রামে আটকানো হয়েছে ট্রেন। ক্যানিংয়ে ট্রেনের সামনে উঠে বিক্ষোভ দেখানো হচ্ছে।

৬. হাওড়া স্টেশন চত্বরে আপাতত স্বাভাবিক রয়েছে বাস চলাচল। অন্যদিনের তুলনায় সরকারি বাস ৩০-৪০ শতাংশ বেশি আছে আজ। হেলমেট পরেই বাস চালাচ্ছেন চালকরা। সিটি পুলিশের বিশেষ বাহিনী নিয়মিতভাবে হাওড়া স্টেশন চত্বরে টহল দিচ্ছে। তবে বেসরকারি বাসচালকরা জানিয়েছেন, বেলা বাড়লে যদি অবরোধ-বিক্ষোভ হয়, তাহলে তুলে নেওয়া হবে বাস।

৭. ধর্মঘটের সমর্থনের ধর্মতলায় পথ অবরোধ বামেদের। পোড়ানো হয়েছে কুশপুতুল।

৮. সকাল থেকেই রানিগঞ্জে ধর্মঘটের সমর্থনে বিক্ষোভ দেখান অবরোধকারীরা। দুর্গাপুর স্টেশন বাজার চত্বরে পথ অবরোধ করা হয়েছে।

৯. মধ্যমগ্রামে আপ-ডাউন লাইনে চলছে বিক্ষোভ। বনগাঁ লোকাল লক্ষ্য করে পাথর ছোড়ে ধর্মঘট সমর্থনকারীরা, এরপল তাদের সাথে বচসা বাধে যাত্রীদের। প্রায় এক ঘণ্টা ধরে চলছে অবরোধ।

Leave a Reply