শুরু হয়ে গেল কোভ্যাক্সিনের তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল, শীঘ্রই মিলতে পারে কোভ্যাক্সিন

0
190

#কোভিড-১৯:   শুরু হয়েছে কোভ্যাক্সিনের তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল। তবে গত আগষ্ট মাসে প্রথম পর্যায়ের ট্রায়ালে বিরূপ ঘটনা ঘটেছিল। সম্ভাব্য টিকা প্রদানের পর এক রোগীকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়েছিল। ভারত বায়োটেক বা সেন্ট্রাল ড্রাগস স্ট্যান্ডার্ড কন্ট্রোল অর্গানাইজেশন এবং ড্রাগস কন্ট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়ার তরফে জনসমক্ষে কিছু জানানো হয়নি।

একটি বিবৃতিতে ভারত বায়োটেকের তরফে বলা হয়েছে, ‘চলতি বছরের অগস্টে প্রথম পর্যায়ের ক্নিনিকাল ট্রায়ালের সময় একটি বিরূপ ঘটনা হয়েছিল। সেই ঘটনার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই তা সিডিএসসিও-ডিসিজিআইকে জানানো হয়েছিল। একেবারে বিস্তারিতভাবে সেই বিরূপ প্রতিক্রিয়া খতিয়ে দেখা হয়েছিল এবং তা টিকা সংক্রান্ত ছিল না বলে উঠে এসেছে।’

বিরূপ প্রতিক্রিয়ার পর অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়-অ্যাস্ট্রোজেনেকা এবং জনসন অ্যান্ড জনসনের ট্রায়াল সাময়িকভাবে বন্ধ রাখা হয়েছিল। ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ, ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ভাইরোলজির সঙ্গে যৌথভাবে সেই সম্ভাব্য টিকা তৈরি করেছে ভারত বায়োটেক। দ্য টাইমস অফ ইন্ডিয়া এবং ইকোনমিকস টাইমসের প্রতিবেদনের পর কোভ্যাক্সিন’-এর বিরূপ ঘটনাটির বিষয়টি সামনে এসেছে।

Advertisement

ভারত বায়োটেকের তরফে বলা হয়েছে, ‘ওই ব্যক্তির চিকিৎসার যাবতীয় খরচ করেছে স্পনসর এবং তিনি সুরক্ষিত আছেন।’

ভারত বায়োটেক জানিয়েছে, সেন্ট্রাল ড্রাগস স্ট্যান্ডার্ড কন্ট্রোল অর্গানাইজেশনের এথিকস কমিটির নির্দেশ মতো পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট-সহ নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে যাবতীয় নথি জমা দেওয়া হয়েছিল। তবে এর বিস্তারিত তদন্তের পরেই দ্বিতীয় ও তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালের অনুমোদন মিলেছে বলে ভারত বায়োটেকের তরফে জানানো হয়। গত সপ্তাহে হায়দ্রাবাদের নিজাম ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্সসে ‘কোভ্যাক্সিন’-এর তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল শুরু হয়েছে। ১৫ আগষ্টের মধ্যে মিলতে পারে কোভ্যাক্সিন।

Leave a Reply