শুভেন্দুর জায়গায় পরবর্তী দায়িত্ব পালন নিয়ে শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে বৈঠক মুখ্যমন্ত্রীর

0
72

ভোটের আগে সরগরম বঙ্গ রাজনীতি। আজ শুক্রবার মন্ত্রীত্ব থেকে পদত্যাগ করছেন সম্প্রতি তৃণমূলের বহু চর্চিত বিদ্রোহী নেতা শুভেন্দু অধিকারী। আর সেই ইস্তফাপত্র গ্রহণও করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেইমতো তড়িঘড়ি করে এদিন বিকেল সাড়ে ৫টা নাগাদ নিজের বাড়িতেই দলের শীর্ষ নেতাদের নিয়ে বৈঠকের ডাক দেন মুখ্যমন্ত্রী। ওই বৈঠকে থাকবেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়, সুব্রত বক্সি ও ফিরহাদ হাকিমরা। শুভেন্দু চলে যাওয়ায় তাঁর জায়গায় কে পরবর্তী দায়িত্ব পালন করবেন সেই নিয়েই আলোচনা হওয়ার কথা বৈঠকে। যদিও তাঁর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে মুখ্যমন্ত্রীই। এর পাশাপাশি শুভেন্দুকে নিয়েও কথা হতে পারে।

প্রসঙ্গত শুক্রবার দুপুরে মন্ত্রিত্ব থেকে পদত্যাগ করেছেন শুভেন্দু অধিকারী। গতকালই হুগলি রিভার ব্রিজ কমিশনার্স (HRBC)-র চেয়ারম্যানের পদ থেকে সরে দাঁড়ান তিনি। যদিও সংলাপের রাস্তা খোলা রেখেছে তৃণমূল। কিন্তু নিজের পদত্যাগ সিদ্ধান্তে অনঢ় শুভেন্দু। সেই মতো মুখ্যমন্ত্রীও তাঁর ইস্তফাপত্র গ্রহণ করেন। তাই শুভেন্দু অধিকারী ইস্যুতে দলের আগামীর কৌশল কী হতে পারে সেই নিয়েই আলোচনা হবে। নিয়ে নির্দেশ দিতে পারেন দলনেত্রী। চূড়ান্ত সিদ্ধান্তও নেবেন তিনিই। শুভেন্দুর হাতে ছিল ৩টি দফতর। বৈঠকে ওই দফতরগুলি বণ্টন করতে পারেন মমতা। সূত্রের খবর, পরিবহণ দফতর দেওয়া হতে পারে ফিরহাদ হাকিমকে। সেচ দফতর পেতে পারেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়।

এ দিন দুপুরে মুখ্যমন্ত্রীকে পাঠানো পদত্যাগপত্রে শুভেন্দু লিখেছেন, ‘মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী, আমি মন্ত্রিত্ব থেকে ইস্তফা দিচ্ছি। যত দ্রুত সম্ভব যেন এটি গ্রহণ করা হয়। একই সঙ্গে এই চিঠি ই-মেল মারফত রাজ্যপালের কাছেও পাঠিয়েছি। আমি খুবই ধন্য যে, রাজ্যের প্রশাসন ও রাজ্য আমাকে এই মন্ত্রিত্বপদে নিয়োগ করেছিল এবং আমি যথাসাধ্য নিজের প্রতিশ্রুতি রাখার চেষ্টা করেছি। রাজ্যের মানুষকে সেবা করার সুযোগ করে দেওয়ার জন্য মুখ্যমন্ত্রী আপনাকে ধন্যবাদ।’

Advertisement

Leave a Reply