‘১৩ বছর পর নন্দীগ্রামের কথা মনে পড়লো! আমি এখানে নতুন নই’, নাম না করেই ফিরহাদ হাকিমকে নিশানা শুভেন্দু অধিকারীর

0
152

#শুভেন্দু-অধিকারী: নন্দীগ্রামে গোকুলনগরে ভূমি উচ্ছেদ প্রতিরোধ কমিটির সভায় গিয়ে ব্যাপক জনসমর্থন আদায় করলেন রাজ্যের পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। এদিন নিজেকে নন্দীগ্রামের ঘরের ছেলে এবং আন্দোলনের কাণ্ডারি হিসেবে পরিচয় দিয়েছেন তিনি। একইসঙ্গে এদিন মঞ্চ থেকে কোনো নাম উল্লেখ না করেই রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে বিঁধলেন শুভেন্দু অধিকারী।

মঞ্চ থেকে শুভেন্দু বলেন, “১৩ বছর পর নন্দীগ্রামের কথা মনে পড়ল! এই সভা এখানে নতুন নয়। এই জনসভা ১৩ বছর ধরে চলছে। শহীদদের জন্য স্মরণসভা এখানে নতুন নয়। ১৩ বছর ধরে আমরা এই দিনে শহীদদের স্মরণ করছি। আমি এখানে নতুন নয়। চেনা বামুনের পৈতে লাগে না।” রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন যে তৃণমূলের অন্দরে যে গোষ্ঠী কোন্দল রয়েছে, তা শুভেন্দু অধিকারীর এই মন্তব্য থেকেই স্পষ্ট।

শুভেন্দু আরও জানান, যাদের এখন নন্দীগ্রামের কথা মনে পড়ছে, তারা যেন ভোটের পর এই নন্দীগ্রামকে ভুলে না যান। বলেন, “নন্দীগ্রামের কথা মনে পড়েছে, দেখে ভাল লাগছে। ভোটের আগে এলেও, ভোটের পরেও এখানে আসতে হবে।”

Advertisement

প্রসঙ্গত, আজ বিকেলে নন্দীগ্রামের হাজরাকাটা এবং চৌরঙ্গীতে দু’টি সমান্তরাল জনসভার আয়োজন করেছে তৃণমূল। সেই জনসভাতে ফিরহাদ হাকিম এবং শুভেন্দু অধিকারীর বাবা শিশির অধিকারীরও থাকার কথা রয়েছে। মনে করা হচ্ছে এই জনসভাতে ফিরহাদের আগমনকেই কটাক্ষ করলেন শুভেন্দু।

পরিবহণমন্ত্রী আরও বলেছেন, ”এই আন্দোলনের জন্মলগ্ন থেকে আছি আমি। নন্দীগ্রামে আমি নতুন মুখ নয়। আমি নন্দীগ্রামের কাঁচা মোরামের রাস্তা ধরে বারবার এসেছি। ৩১ তারিখও বিজয়া জানাতে এসেছিলাম। নন্দীগ্রামের মানুষ আক্রান্ত হলেই আমি পাশে থেকেছি। রাজনীতির জন্য এখানে আসিনি কখনও। এখানকার মানুষের ভাল-মন্দে আমি সবসময় পাশে থাকার চেষ্টা করেছি।”

উল্লেখ্য, আজ গোকুলনগরের জনসভার মঞ্চকে অরাজনৈতিক মঞ্চ বলে আখ্যায়িত করেছেন পরিবহণমন্ত্রী। একইসঙ্গে তিনি এও জানিয়ে দিয়েছেন যে তিনি শুধুমাত্র রাজনৈতিক মঞ্চ থেকেই রাজনীতির কথা বলবেন। ফলে রাজ্যের পরিবহণমন্ত্রী দলবদল করবেন কি না, সেই জল্পনা স্বভাবতই জিইয়ে রাখলেন শুভেন্দু অধিকারী।

Leave a Reply