চলতি বছর উৎসবে বাজি ফাটানো নিষিদ্ধ ! কলকাতা হাইকোর্টের রায় বহাল রেখেই সাফ জানালো সুপ্রিম কোর্ট

0
193

#সুপ্রিম-কোর্ট: বাজি ফাটানোতে অনুমতি দিল না সুপ্রিম কোর্ট। করোনা অতিমারীর আবহে এই বছর বাজি বিক্রি এবং ফাটানো নিষিদ্ধ করার কথা ঘোষণা করেছিল কলকাতা হাইকোর্ট। হাইকোর্টের সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টে পাল্টা আবেদন করে বাংলার আতস বাজি সংগঠন। এদিন সেই আবেদন খারিজ করে পুরনো রায়ই বহাল রাখলো দিল সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড় এবং বিচারপতি ইন্দিরা ব্যানার্জির ডিভিশন বেঞ্চ।

বিচাপতিরা এদিন সাফ জানিয়েছেন, “উৎসব গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু এই কোভিড মহামারী পরিস্থিতিতে জীবনরক্ষা হল অগ্রাধিকার। মানুষের জীবন এখন সঙ্কটে। হাইকোর্ট সেই স্থানীয় পরিস্থিতির কথা বেশি ভালোভাবে জানে।” সেই কারণেই কালীপুজো, দীপাবলি, এবং ছটপুজোয় গোটা পশ্চিমবঙ্গে বাজি ফাটানোর উপর কলকাতা হাইকোর্ট যে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে, তাই বহাল রাখলো সুপ্রিম কোর্ট।

প্রসঙ্গত, ন্যাশনাল গ্রিন ট্রাইব্যুনালের রায়কেই ব্রহ্মাস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন জানিয়েছিল সারা বাংলা আতসবাজি সংগঠন। ন্যাশনাল গ্রিন ট্রাইব্যুনালের বক্তব্য ছিল, যে সমস্ত এলাকায় বায়ুদূষণ সূচক ‘মডারেট’, সেখানে বাজি ব্য়বহার করা যাবে। একইসঙ্গে বাজি ব্যবহারের সময়সীমাও বেঁধে দিয়েছিল গ্রীন ট্রাইব্যুনাল। দীপাবলিতে রাত ৮টা থেকে ১০টা, এবং ছটপুজোয় সকাল ৬টা থেকে ৮টা ঠিক করা হয়েছে।

Advertisement

তবে গ্রীন ট্রাইব্যুনালের নির্দেশে এও বলা হয়েছিল যে এলাকা ভিত্তিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে সেখানকার প্রশাসন যদি কড়া পদক্ষেপ নিতে চায়, তবে তা নির্দ্বিধায় নিতে পারে। ন্যাশনাল গ্রীন ট্রাইব্যুনালের এই নির্দেশটিকে উপলক্ষ করেই বাজি সংগঠনের আবেদনে সায় দেয়নি সুপ্রিম কোর্ট। শীর্ষ আদালতের পর্যবেক্ষণে স্পষ্ট উল্লেখ করা হয়েছে যে হাইকোর্টই এলাকা-ভিত্তিক পরিস্থিতি সম্পর্কে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে সক্ষম।

Leave a Reply