ভারত-পাক সীমান্ত লড়াইয়ে শহীদ রঘুনাথপুর গ্রামের ছেলে সুবোধ ঘোষ, শোকস্তব্ধ গ্রাম

0
194

#নদিয়া:      দীপাবলির আগেই ফের উত্তপ্ত ভারত-পাক সীমান্ত। যুদ্ধবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে হঠাৎ গুলি ও বোমা বর্ষণ করল পাক সেনা। তবে এর পাল্টা জবাব দেয় ভারত। এর ফলে নিহত হয় কমপক্ষে আটজন পাকিস্তানের সেনা। তবে এর মধ্যেই প্রাণ হারিয়েছেন রঘুনাথপুর গ্রামের ছেলে সুবোধ ঘোষ। মাত্র ২৪ বছরের এই তরুণ সেনাকর্মীর মৃত্যুর খবর আসার পর থেকেই গ্রামে শোকের ছায়া নেমে আসে।

শুক্রবার দুপুর থেকে দুদেশের সেনা এবং সীমান্তরক্ষীদের মধ্যে নিয়ন্ত্রণরেখার বিস্তীর্ণ এলাকাজুড়ে চলছিল সংঘর্ষ, গুলিযুদ্ধ, মর্টার শেলিং। আত্মরক্ষায় চারটি গ্রামে বাঙ্কারেও আশ্রয় নিয়েছিলেন গ্রামবাসীরা। সেনাবাহিনীর এক ক্যাপ্টেন, বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্সের এক সাব–ইন্সপেক্টর অফিসার সহ ভারতের পাঁচ নিরাপত্তারক্ষী এবং ছজন গ্রামবাসী পাকিস্তানের গুলিবর্ষণে প্রাণ হারিয়েছেন। বিএসএফের ওই কর্মীর নাম রাকেশ দোভাল। তিনি উত্তরাখণ্ডের বাসিন্দা। শহিদ জওয়ানদের মধ্যে রয়েছেন এই বাঙালি, সুবোধ ঘোষ।

পরিবার সূত্রে খবর, ভারতীয় সেনাবাহিনীতে গানারের পদে ছিলেন সুবোধ। নিজের দক্ষতায় অল্প বয়সেই চাকরি পেয়েছিলেন। শুক্রবার বিকেলে তার বাড়িতে ফোন করে মৃত্যুর খবর জানানো হয়। গ্রামের বহু মানুষ জড়ো হয়েছেন তার বাড়িতে। গত জুলাই মাসে শেষবার এক মাসের কিছু বেশি সময়ের জন্য তিনি বাড়ি এসেছিলেন।

Advertisement

মৃত জওয়ানের মা বাসন্তী ঘোষ বলেন, ‘বিকেলে কাশ্মীর থেকে ফোন আসে। সেই ফোনে জানানো হয়, পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর গুলিতে আমার ছেলে প্রাণ হারিয়েছে।’

তার স্ত্রী অনিন্দিতা ঘোষ, ‘বৃহস্পতিবার মেয়েকে নিয়ে ডাক্তারের কাছে গিয়েছিলাম। আমার স্বামী বহুবার ফোন করে মেয়ের খোঁজ নিয়েছেন। কিন্তু আজ সকাল থেকে ফোন বন্ধ। তখনও বুঝিনি আমার এমন সর্বনাশ হয়েছে।’‌

Leave a Reply