পদত্যাগ করা উচিত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়র! মন্তব্য দিলীপ ঘোষের

0
179

#দিলীপ_ঘোষ – আজ সকালে আবার ইকো পার্কে প্রাতর্ভ্রমণে বেরিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সম্পর্কে কবাক্য বললেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এদিন তিনি আরও একবার মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে বলেন, “নির্বাচনের আগে সবাইকে প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন তিনি। যদি কল্পতরু হতেন, তাহলে দল ছেড়ে সবাই পালাত না।” তাঁর দাবি, ” যে দল ছেড়ে এমপি, এমএলএ, মন্ত্রীরা চলে যায়, সেই পার্টিটার আছে টা কী। তিনি বলেন, একমাস পর দেখবেন, এই পার্টিটা বলে কিছু থাকবে না। দিল্লিতে তৃণমূলেক বর্ষীয়ান বিধায়ক মিহির গোস্বামীর বিজেপিতে যোগ দেওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, তারা আগেই বলেছেন, অনেক এমএনএ আছে, জয়েন করবেন, সবে শুরু হয়েছে। মাস খানেকের মধ্যে আরও অনেক কিছু ঘটনা ঘটবে। ”

এর পাশাপাশি শুক্রবার বিকেলে শুভেন্দু অধিকারীর পদত্যাগপত্র গ্রহণ করার পরই জরুরি বৈঠকে দলের শীর্ষনেতাদের নিজের বাড়িতে ডেকে পাঠান মুখ্যমন্ত্রী। যা নিয়ে কটাক্ষ করে দিলীপ ঘোষ বলেন, পার্টির ডিজিস্টার নিয়ে ব্যস্ত দিদি। তাঁর কথায়, তৃণমূল সরকার ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্টে পুরোপুরি ফেল। কিন্তু পার্টিতে যে ডিজাস্টার শুরু হয়েছে, তা নিয়ে দিদি খুব ব্যস্ত রয়েছেন। দলের ডিজিস্টার নিয়ে মিটিং এখন প্রতি সপ্তাহে হবে। প্রতিদিনও হতে পারে।”

এর পরেই তিনি বলেন যে পদত্যাগ করা উচিত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়র! তাঁর দাবি, ” একটা দল ক্ষমতায় আছে। সেই পরিস্থিতিতে যদি কোনও সাংসদ, বিধায়ক চলে যান, তাহলে সেখান থেকে পদত্যাগ করা উচিত। যাদের প্রতি দলের এমএলএ, এমপিদের ভরসা নেই, সাধারণ মানুষ তাদের ওপরে কীভাবে ভরসা করবেন? বিজেপি ক্ষমতাতেও নেই। প্রশাসন কেসের ওপর কেস দিচ্ছে। তারপরেও যদি মানুষ বিজেপিতে যোগ দেয় তাহলে বলাই যায় ওই পার্টিটা শেষ হয়ে গিয়েছে। বিজেপিতে আদর্শ কিংবা সম্মানের জন্য নেতা থেকে সাধারণ মানুষ যোগ দিচ্ছেন। “

Advertisement

Leave a Reply