ভুল মূর্তিতে মাল্যদান করার জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে ক্ষমা দাবি বাঁকুড়ার অধিবাসীদের

0
71

#অমিত_শাহ – বেশ কিছুদিনের আগে, রাজ্যের সফরে এসেছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। এবং এখানে আসা তিনি গেছিলেন বাঁকুড়ার সফরে। এমনকি সেখানে গিয়ে বিরসা মুণ্ডার মূর্তিতে মালাও প্রদান করেছিলেন অমিত শাহ। কিন্তু সেই নিয়ে শুরু হয়ে গেলো বিতর্ক। যে মূর্তিতে তিনি সেদিন মালা পড়িয়েছিলেন সেটি আদৌ বিরসা মুণ্ডার মূর্তি নয় বলে দাবি করেছেন সেখানকার আদিবাসীরা। যার ফলে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানায় সেখানকার গ্রামবাসীরা। এবং এই দাবি জানিয়ে প্রায় ৫০ হাজার চিঠি লিখেছেন অমিত শাহকে।

গ্রামবাসীদের দাবি, আদিবাসী সম্প্রদায়ের গর্ব বিরসা মুণ্ডাকে অসম্মান করার জন্য, অমিত শাহকে ক্ষমা চাইতে হবে তাঁদের কাছে। উলেক্ষ যে বাঁকুড়ার আদিবাসীদের দাবি বিরসা মুণ্ডা ভেবে আদিবাসী শিকারির মূর্তিতে নাকি মালা দিয়েছিলেন অমিত শাহ। এতে আদিবাসী সমাজের দেবতার অপমান করা হয়েছে। তা কিছুতেই মেনে নেওয়া হবে না বলে দাবি তাঁদের।

যদিও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে চিঠি লেখার ঘটনা নিয়ে মুখ খুললেন রাজ্যের সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তাঁর দাবি, তৃণমূল চক্রান্ত করছে। বিরসা মুণ্ডার মূর্তি সরিয়ে সেখানে বসানো হয়েছে। সেটা যদি বিরসা মুন্ডার মূর্তি নাও হয় অমিত শাহ যখন মালা দিয়েছেন তখন সেটাই বিরসা মুণ্ডার মূর্তি বলে পাল্টা দাবি করেছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তৃণমূল কংগ্রেস এই নিয়ে অকারণে রাজনীতি করছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি। উলেক্ষ যে সামনে বিধানসভা ভোটে আদিবাসী এবং মতুয়া ভোটকে টার্গেট করেই এগোচ্ছে বিজেপি। তাই বিধানসভা ভোটের আগে প্রথম রাজ্য সফরে এসেই আদিবাসী বাড়িতে মধ্যাহ্ন ভোজন করেন অমিত শাহ। এছাড়াও বাঁকুড়ায় আদিবাসী সমাজের দেবতা বিরসা মুণ্ডার মূর্তিতে মালা দান করেন তিনি।

Advertisement

Leave a Reply