আর দেরি নয়, ২৩শে নভেম্বর থেকে নয়া নির্দেশিকা মেনে গুজরাতে খুলবে স্কুল

0
80

#গুজরাত:  করোনার ত্রাসে গোটা দেশ, এখনও মেলেনি ভ্যাকসিনের খোঁজ। আর তার মধ্যেই দীর্ঘদিন লকডাউনের পরেই নিউ নর্ম্যালে ধীর গতিতে স্বাভাবিক হচ্ছে জনজীবন। আনলক-৫ পর্বে রাজ্যগুলির উপরেই স্কুল খোলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা জানিয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকার। আর সেই মতোই স্কুল খুলে বিপত্তি পোহাতে হয়েছিল অনেক রাজ্যকেই। আর তার মধ্যেই করোনা আবহেই স্কুল ও কলেজ খোলার সিদ্ধান্ত নিল গুজরাত সরকার।

এদিন গুজরাত সরকারের তরফে স্পষ্ট জানানো হয়েছে, “নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত স্কুল ও কলেজ খুলবে ২৩ নভেম্বর থেকে।” যদিও এরপরেই শিক্ষা দফতরের তরফে জানানো হয়েছে, “যে ছাত্রছাত্রীরা অভিভাবকের আপত্তির কারণে স্কুলে যেতে পারবেন না, তাঁরা অনলাইনেই ক্লাস চালিয়ে যেতে পারবে।”

গুজরাত মন্ত্রিসভার বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রূপানি স্কুল খোলার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়ে বলেন, “২৩ নভেম্বর থেকে খুলবে সেকেন্ডারি, হায়ার সেকেন্ডারি, স্নাতকোত্তর, স্নাতক স্তরের ফাইনাল ইয়ার, মেডিক্যাল ও প্যারা মেডিক্যাল কোর্সের ক্লাস সহ ইঞ্জিনিয়ারিং এর চূড়ান্ত বর্ষের ক্লাস ও সকল পলিটেকনিক কলেজের ক্লাস চালু হবে।

Advertisement

তবে এরপরেই মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রূপানি ও শিক্ষামন্ত্রী ভূপেন্দ্র সিং চুড়াসামা জানিয়েছেন, স্কুল খোলার আগে এসওপি প্রকাশ করা হবে সমস্ত সরকারি ও বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের জন্য। এমনকি সংক্রমণের ভয়ে ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার কারণে জোড়-বিজোড় ক্রমিক নম্বর হিসাবে ছাত্রছাত্রীরা বিদ্যালয়ে প্রবেশ করবে। সপ্তাহে তিনদিন ক্লাস করানো হবে।

এছাড়াও হিন্দুস্তান টাইমস্ এর একটি প্রতিবেদন সূত্রে জানা গেছে শিক্ষামন্ত্রী ভূপেন্দ্র সিং চুড়াসামা জানিয়েছেন, “স্কুলে উপস্থিতি বাধ্যতামূলক করা হয়নি। অভিভাবকরা চাইলে তাঁর সন্তানকে স্কুলে না-ও পাঠাতে পারেন। সে ক্ষেত্রে অনলাইন ক্লাসও চালু থাকছে। স্কুলে থার্মাল স্ক্রিনিং-এর ব্যবস্থা থাকবে। কোনও অ্যাসেম্বলি হবে না, হবে না খেলাধূলার ক্লাস। কোনও জমায়েত হয়, কোনও অনুষ্ঠানও পালিত হবে না স্কুলে।”

তবে অন্যপথে হেঁটেছে তামিলনাড়ু। সংক্রমণের ভয়ে বিদ্যালয় খোলার দিনক্ষণ পিছিয়ে দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী। এমনকি অভিভাবকদেরও একই মত।

Leave a Reply