করোনার দাপটে একইসাথে মা, বাবা ও দাদাকে হারিয়ে মানসিক বিপর্যস্ত গুজরাতের করোনা-যোদ্ধা পুলিশকর্মী

0
83
করোনার দাপটে একইসাথে মা, বাবা ও দাদাকে হারিয়ে মানসিক বিপর্যস্ত গুজরাতের করোনা-যোদ্ধা পুলিশকর্মী

#গুজরাত, এই একটা বছর মহামারীর সঙ্গে লড়াই করে যিনি আমাদের প্রতিনিয়ত সতর্ক করে চলেছেন, তিনি হারালেন সেই মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে নিজের আপনজনদের। একই সঙ্গে করোনা কেড়ে নিল মা, বাবা ও দাদাকে। গুজরাত পুলিশের কনস্টেবল ধাওয়াল রাওয়াল, ভাবতেই পারেননি করোনা তাঁর পরিবারকে এভাবে শেষ করে দেবে। করোনা আক্রান্ত হয়ে তাঁর বাবা, মা ও দাদা তিনজনেই হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। করোনা আক্রান্ত হয়ে ১৪ নভেম্বর মারা যান মা, তাঁর দুদিন পর সিভিল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বাবাও প্রাণত্যাগ করেন। দুদিনের ব্যবধানে বাবা-মাকে হারিয়ে ভেঙে পড়েন তিনি। ভাবতে পারেননি আরও এক বড় ধাক্কা খেতে চলেছেন তিনি। বাবার মৃত্যুর তিনদিন পর হারালেন দাদাকেও। ধাওয়াল রাওয়াল-এর দাদা ভর্তি ছিলেন শহরের এক বেসরকারি হাসপাতালে।

এভাবে মাত্র ৫ দিনের ব্যবধানে বাবা-মা-দাদাকে হারিয়ে মানসিকভাবে বিধ্বস্ত ধাওয়াল রাওয়াল। পাশাপাশি হাতে এসেছে হাসপাতালের মোটা অঙ্কের বিল। বিল দেখে মাথায় হাত কনস্টবলের! কিভাবে সেই টাকা মেটাবে সেই চিন্তা রাতের ঘুম কেড়ে নিয়েছে। পুজোর মরশুম শুরু হতেই বহু মানুষ করোনা বিধি লঙ্ঘন করে চলেছে। করোনার রূপ যে কতটা ভয়ানক হতে পারে, তা মাথা থেকে বেরিয়ে গিয়েছে অনেকেরই। ফের এই ঘটনা বুঝিয়ে দিল এখনও করোনার দাপট একই রয়ে গিয়েছে। ধাওয়াল রাওয়ালের মতো বহু পুলিশকর্মী সামনের সারিতে থেকে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করছেন।এবার সাধারণ মানুষ যদি খামখেয়ালি দেখান, তাহলে ফের পূর্ণ লকডাউন জারি হবে দেশে। ফের দেশে মৃত্যু মিছিল বইবে।

 

Advertisement

Leave a Reply