এবার গিলগিট-বালটিস্তানের মানুষও মুখ ফেরাল! সংখ্যাগরিষ্ঠতা তৈরীতে ব্যর্থ ইমরান খানের সরকার

0
222

এবার গিলগিট -বালটিস্তানের মানুষও আর চাইছে না ইমরান খানকে। যার স্পষ্ট প্রতিফলন দেখা গেল নির্বাচনে। যার জেরে সর্বাধিক আসন পেয়েও সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়া হলো না পাকিস্তান তেহরিক-ই ইনসানের। পাকিস্তান সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, পিটিআইয়ের দখলে রয়েছে ৯টি আসন। যদিও এই এখনও সরকারিভাবে জানায়নি পাকিস্তান।

অন্যদিকে একাধিক ইস্যুতে আগে থেকেই বেকায়দায় রয়েছে ইমরান খানের সরকার। তার উপর গিলগিট -বালটিস্তানের নির্বাচনেও ইমরান খানের সরকারের এই হাল। এর থেকে স্পষ্ট যে পাকিস্তানে মানুষের মধ্যে ইমরান খানের সরকারের প্রতি ক্ষোভের সঞ্চার হচ্ছে। যার প্রভাব পড়তে শুরু করেছে ভোট ব্যাংকেও।

প্রসঙ্গত রবিবার গিলগিট-বালটিস্তানে ২৪টি আসনের জায়গায় (Gilgit-Baltistan) ২৩টি আসনে ভোট হয়। এক প্রার্থীর মৃত্যুতে একটি আসনে ভোট বাতিল হয়।
২৩টির মধ্যে ইমরান খানের পিটিআইয়ের দখলে এসেছে ৮-৯টি আসন। নির্দল প্রার্থীরা ৬-৭ টি আসনে জিতেছেন। বেনজির ভুট্টোর পুত্র বিলাওয়ালের দল PPP ৫টি, নওয়াজের PML-N ২টি, JIU-F ও MWM একটি করে আসন পেয়েছে। সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে পিটিআইকে কয়েকজন নির্দল জনপ্রতিনিধিদের দলে টানতে হবে।

Advertisement

বলা বাহুল্য এই নির্বাচন ছিল ইমরান খানের প্রেস্টিজ ফাইট। সোমবার ফলাফল সামনে আসতেই দেখা যায়, অন্যান্যবারের ধরা বজায় রেখেই পাকিস্তানে ক্ষমতায় থাকা দলই সর্বাধিক আসন পেয়েছে।সন্ত্রাস রুখতে কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছিল। তবে ইমরানের দলের বিরুদ্ধে নির্বাচনে রিগিংয়ের অভিযোগ এনেছে বিরোধীরা।

সরকারিভাবে ভোটের ফল ঘোষণার আগে কিছুটা সময় চেয়েছে সে দেশের নির্বাচন কমিশন। তবে পাকিস্তানের একাধিক সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, ইমরান খানের পিটিআইয়ের দখলে এসেছে ৮-৯টি আসন। নির্দল প্রার্থীরা ৬-৭ টি আসনে জিতেছেন। বেনজির ভুট্টোর পুত্র বিলাওয়ালের দল PPP ৫টি, নওয়াজের PML-N ২টি, JIU-F ও MWM একটি করে আসন পেয়েছে। সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে পিটিআইকে কয়েকজন নির্দল জনপ্রতিনিধিদের দলে টানতে হবে। গত পাঁচবছর এই এলাকায় রাজত্ব করেছে নওয়াজের PML-N । ২০১৫ সালে তাঁদের দখলে ছিল ১৬টি আসন। এবার একধাক্কায় তা কমে দাঁড়িয়েছে ২টিতে।

Leave a Reply