“দিদি একটু দেখুন”, স্বামীর মৃত্যু রহস্য জানতে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি মৃতের স্ত্রীর

0
170

#কলকাতা: কাজের সূত্রে কলকাতায় এসে হঠাৎই অসুস্থ হয়ে পড়েন এক ব্যক্তি, তারপরই হয় মৃত্যু। তবে মৃত্যুর ঠিক আগেই টালিগঞ্জের আরএসভি হাসপাতাল সমন্ধে একটি লেখা লিখেছিলেন মোবাইলে। ওই হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তিনি। মাত্র ৩৬-এ বছর বয়সী ওই ব্যক্তির নাম বিশ্বজিৎ দেববর্মণ। মৃতের স্ত্রী অনুষ্কার আবেদন, এই মোবাইলের টেক্সটটিকে গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হোক। কেন হাসপাতাল সমন্ধে বিরূপ কথা লিখেছিলেন বিশ্বজিৎ? স্বামীর মৃত্যুর সঠিক কারণ জানতে উদগ্রীব অনুষ্কা চিঠি লিখেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। “দিদি একটু দেখুন।” চিঠির প্রতিক্রিয়া পান মৃতের স্ত্রী। গোটা ঘটনা রাজ্য স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রক কমিশনকে খতিয়ে দেখতে বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী। আপাতত সেই মৃত্যুর কারণ বিচারের ভার রাজ্য স্বাস্থ্যনিয়ন্ত্রক কমিশনের হাতে।

মৃতের পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, ওবেসিটির অসুখে ভুগতেন বিশ্বজিৎ। তার ওজন স্বাভাবিকের তুলনায় বেশি ছিল। কিন্তু শুধুমাত্র সে কারণে মৃত্যু অত্যন্ত অস্বাভাবিক। অক্টোবরের শেষে অফিসের কাজে মুম্বই থেকে কলকাতায় এসেছিলেন তিনি। শরীর খারাপ হওয়ায় ভর্তি হন আরএসভি হাসপাতালে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থাতেই তিনি কোভিড পজিটিভ হন। কোভিড পিরিয়ডে ফোন ব্যবহার করতে দিত না হাসপাতাল। চাইলেও স্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে পারতেন না তিনি । যোগাযোগের অপ্রতুলতার কারণে ঠিক কোন পথে চিকিৎসা চলছে তা জানতেই পারেননি স্ত্রী। দুর্গা পঞ্চমীর দিন স্বামীর মৃত্যুর পর হাসপাতালে এসে মোবাইলটি হাতে পান অনুষ্কা। সেটা অন করতেই চমকে যান তিনি । দেখতে পান হাসপাতালের চিকিৎসা ব্যবস্থা সমন্ধে একটি মেসেজ।

স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রক কমিশনের চেয়ারম্যান প্রাক্তন বিচারপতি অসীমকুমার বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ‘মারা যাওয়ার আগে একটা মেসেজ পাঠিয়েছেন ওই ভদ্রলোক। তাতে হাসপাতাল সমন্ধে কিছু লেখা ছিল। তবে হাসপাতালের বিরুদ্ধে কিংবা চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে কোনও লিখিত অভিযোগ করেননি তাঁর স্ত্রী।’ কমিশন চেয়ারম্যান জানিয়েছেন, ‘তিনি শুধু জানতে চান ঠিক কী কারণে ওঁর স্বামী মারা গেলেন। মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রীও উদ্বিগ্ন। আমরা অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে বিষয়টি দেখছি। হলফনামা করে ওই মহিলাকে সম্পূর্ণ অভিযোগ পাঠাতে বলা হয়েছে।’ হাসপাতালকেও বলা হয়েছে মৃত ব্যক্তির চিকিৎসা সংক্রান্ত সমস্ত নথি হলফনামার আকারে জমা দিতে।

Advertisement

Leave a Reply