দিনের পর দিন বাবা-মায়ের দেহ আগলে ঘরে বসে রইলেন মেয়ে!

0
336

#বরাহনগর :   বাবা মায়ের একমাত্র মেয়ে, বরাহনগরের একটি আবাসনে বৃদ্ধ মা বাবার সাথে বসবাস ছিল মেয়েরও। মা বাবার মৃত্যু হয়েছে, তাই দিনের পর দিন বাবা-মায়ের দেহ আগলে ঘরে বসে রইলেন মেয়ে।

ফের মৃতদেহ আগলে রাখার এই ঘটনাটি ঘটেছে কলকাতার উত্তর শহরতলির বরাহনগরে।
টিএন বন্দ্যোপাধ্যায় রোডের একটি আবাসনের একটি ফ্ল্যাট থেকে প্রবীণ চিকিৎসক দম্পতির পচন ধরা দেহ উদ্ধার করেন পুলিশকর্মীরা। সঙ্গে উদ্ধার করা হয় দম্পতির মানসিক ভারসাম্যহীন মেয়ে।

এ বিষয়ে হিন্দুস্তান টাইমস্ কে স্থানীয়রা জানিয়েছেন, ওই পরিবারটি এলাকায় কারও সঙ্গে মেলামেশা করত না। এমনকি যোগাযোগ ছিল না আত্মীয়দের সঙ্গেও। সোমবার সকালে ফ্ল্যাটটি থেকে দুর্গন্ধ বেরোতে শুরু করলে পুলিশে খবর দেন তাঁরা। বরাহনগর থানার পুলিশ গিয়ে দরজা ভেঙে ওই দম্পতির পচন ধরা দেহ উদ্ধার করেন।

Advertisement

ঠিক কী কারণে মৃত্যু, তা খতিয়ে দেখতেই ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে ওই দম্পতির দেহ।
পুলিশের অনুমান, মেয়ে মানসিক ভারসাম্যহীন বলে ফ্ল্যাট হাতাতে কেউ খুন করে থাকতে পারেন দম্পতিকে।

বরাহনগর থানার এক আধিকারিক সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, “বৃদ্ধের দেহে যেভাবে পচন ধরেছে তাতে মনে হয় অন্তত ৬ দিন আগে মৃত্যু হয়েছে। বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে তার পরে। তাঁদের স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে না কি অন্য কোনও রহস্য রয়েছে তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।”

Leave a Reply