সারা দেশে দ্রুত কমছে করোনা সক্রিয় রোগীর সংখ্যা সুস্থতার হার ৯৩ শতাংশ।

0
68

দেশে অনেকটাই কমল দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা।
স্বস্তি দিলো শেষ কয়েকদিনের দেশের করোনা পরিসংখ্যা। উল্লেখযোগ্য ভাবে কমেছে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা। পাশপাশি লাগাতার দেশে দৈনিক আক্রান্ত আশি হাজারের নীচে থাকছে। এমনকি গতকাল দেশে দৈনিক সুস্থতা ছিল দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যার থেকে বেশি। কয়েকদিন ধরে দেশে লাগাতার দৈনিক রেকর্ড মানুষ সুস্থ হয়েছে। এমনকি তা গড় দৈনিক আক্রান্ত থেকেও বেশি। উল্লেখ্য গতকালও দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছিল মাত্র ৪৭ হাজার। এমনকি গতকাল দৈনিক সুস্থতা ছিল প্রায় ৬২ হাজার ।

ইতিমধ্যেই বিশ্বের দ্বিতীয় দেশ হিসেবে ভারতে মোট করোনা আক্রান্তে ৮৬ লক্ষ ছাড়াল । উল্লেখ্য বলে রাখি, এই সংখ্যা হিসাবে রয়েছে। কিন্তু আদতে প্রকৃত করোনা আক্রান্তের সংখ্যা এর চেয়ে ১০ গুণ বেশি। ঠিক এইরকমই তথ্য উঠে এসেছে আইসিএমআর এর সমীক্ষায়। সম্প্রতি প্রকাশিত ওই সমীক্ষা বলছে, প্রতিটি ‘কনফার্মড’ কেসের পাশাপাশি ৮০-১৩০টি কেস হিসেবের বাইরে থেকে যাচ্ছে।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের বুলেটিন অনুযায়ী শেষ চব্বিশ ঘন্টায় আক্রান্ত হয়েছে ৪৭৯০৬। এখনও পর্যন্ত ভারতে মোট আক্রান্ত ৮৬ লাখ ছাড়িয়েছে। ভারত ইতিমধ্যেই ব্রাজিলেকে টপকে বিশ্ব করোনার তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে। উল্লেখযোগ্য বিষয় হলো দুই ভারত ও ব্রাজিলের মোট আক্রান্তের পার্থক্য ক্রমশ বাড়তে শুরু করেছে। যদিও সক্রিয় রোগীর নিরিখে ভারত অনেক আগেই ব্রাজিলকে ছাপিয়ে গিয়েছে।

Advertisement

গতকাল সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে প্রায় ৫২ হাজার মানুষ (‌৫২৭১৮)। দেশে মোট সুস্থ রোগীর সংখ্যা ৮০ লক্ষ ৬৭ হাজার। ভারতে এখন সুস্থতার হার ৯২.৯ শতাংশ।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য বুলেটিন অনুসারে ১১ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা মোট ৮৬ লক্ষ ৮৩ হাজার ৯১৬ জন। ভারতে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৪ লক্ষ ৯০ হাজার।

পাশপাশি শেষ চব্বিশ ঘন্টায় দেশে করোনায় বলি হয়েছে ৫৫০ জন। কোভিড-১৯ সংক্রমণে এ যাবৎ দেশে মৃত্যু হয়েছে প্রায় ১,২৮,১২১ জনের। বিশ্বের অন্যান্য দেশের তুলনায় ভারতের মৃত্যুহার এখনও খানিকটা কম। সেটাই আতঙ্কের মধ্যে খানিকটা স্বস্তি দিচ্ছে। মৃত্যুহার ১.৫ শতাংশ।

ভারতের মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু, কর্ণাটক, অন্ধ্রপ্রদেশ সহ বেশ কিছু রাজ্যে করোনা প্রভাব সবচেয়ে বেশি। তবে বর্তমান পরিস্থিতি অনুযায়ী সবচেয়ে খারাপ অবস্থা কেরালার। শুধু মহারাষ্ট্রেই করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৭ লাখ ছাড়িয়েছে। তারপরেই রয়েছে তামিলনাড়ু ও অন্ধ্রপ্রদেশ।

ইতিমধ্যেই দেশে প্রায় ১২ কোটি ১৯ লক্ষ মানুষের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় দেশে প্রায় ১১ লক্ষ ৯৩ হাজার করোনা পরীক্ষা হয়েছে। সংক্রমণের নিরিখে এখনও বিশ্বে দ্বিতীয় স্থানে আছে ভারত।

Leave a Reply