প্রয়াত ইন্দিরা গান্ধীর ১০৩তম জন্মদিনে তাঁর সমাধিতে শ্রদ্ধা জানালেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী

0
170
প্রয়াত ইন্দিরা গাঁধীর ১০৩তম জন্মদিনে তাঁর সমাধিতে শ্রদ্ধা জানালেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গাঁধী

#ইন্দিরা_গান্ধী:  প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর আজ ১০৩ তম জন্মদিন। দক্ষ প্রধানমন্ত্রী এবং শক্তিস্বরূপিণী তথা ইন্দিরা গান্ধীর ১০৩তম জন্মদিনে তাঁকে স্মরণ করলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। কংগ্রেস বলে উঠল ইন্দিরা হলেন মাতৃভূমির মহান কন্যা। নিজের টুইটার হ্যান্ডলে রাহুল লিখলেন, “এক জন দক্ষ প্রধানমন্ত্রী ও শক্তিস্বরূপিণী ছিলেন শ্রীমতি ইন্দিরা গান্ধী। তাঁর জন্মদিনে আমার শ্রদ্ধাঞ্জলি। গোটা দেশ আজও তাঁর বলিষ্ঠ নেতৃত্বের কথা স্মরণ করে। কিন্তু আমি তাঁকে আমার ভালবাসার দাদি হিসেবেই স্মরণ করছি। তাঁর শেখানো কথাগুলি আমাকে প্রতিনিয়ত প্রেরণা জোগায়”।

বৃহস্পতিবার দিল্লির শক্তিস্থলে গিয়ে ইন্দিরা গাধীর সমাধিতে শ্রদ্ধা জানান রাহুল। এদিন তাঁকে শ্রদ্ধা জানিয়ে কংগ্রেসের অফিশিয়াল টুইটার হ্যান্ডলে লেখা হয়েছে, এক জন প্রবর্তক, দূরদর্শী, প্রকৃত নেত্রী এবং ভারতের মহান কন্যা ইন্দিরা গান্ধী দেশবাসীর কাছে প্রধানমন্ত্রীর থেকে বেশি কিছু ছিলেন। এমন প্রধানমন্ত্রী পেয়ে সকলে গর্বিত। ইন্দিরা দেশকে মহিমান্বিত ও সমৃদ্ধিশালী করতে তাঁর সর্বশক্তি নিয়োজিত করেছিলেন।

ইন্দিরা গান্ধী ভারতীয় রাজনীতির অন্যতম বর্ণময় চরিত্র। রাজনীতিতে সম্ভবত তিনিই একমাত্র রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব যিনি যতটা সমাদৃত-সম্মানিত, ততটাই বিতর্কিত। অনেকটা সময় ধরে দেশবাসী তাঁকে দেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে চেয়েছিলেন। দেশের অর্থনীতি উন্নয়ন ও মজবুত করতে তাঁর অবদান অতুলনীয়। কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় স্বরাষ্ট্র, অর্থ, প্রতিরক্ষার মতো গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রকের দায়িত্ব সামলেছেন ইন্দিরা। তাঁর প্রত্যক্ষ সহযোগিতায় ও সমর্থনে পাকিস্তান ভেঙে বাংলাদেশ গঠিত হয়েছে।

Advertisement

পাশাপাশি ১৯৭৫ সালে জরুরি অবস্থা জারির জন্য যথেষ্ট নিন্দিত হতে হয়েছিল ইন্দিরাকে।সবমিলিয়ে আজও মানুষ মনে রেখেছেন তাঁকে। ভারতীয় রাজনীতিতে আজও বর্ণময় চরিত্র ইন্দিরা গান্ধী। ১৯৮৪ সালের ৩১ অক্টোবর নিজের দেহরক্ষীদের গুলিতে নিহত হন তিনি। কিন্তু তাঁর মৃত্যুর ৩৬ বছর পরও ভারতবাসীর চর্চার অন্যতম বিষয় এখনও ইন্দিরা গান্ধী।

Leave a Reply