যেখানে বেশি ভিড় করোনা পরীক্ষা সেখানে, রাজ্যগুলিকে নিদান কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের

0
128

#স্বাস্থ্যমন্ত্রক: কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক ফের করোনা পরীক্ষার গতি বাড়াতে বলল। এবার তারা নিদান দিলেন যে যেখানে ভিড় বেশি সেখানে করোনা পরীক্ষা করতে হবে। অর্থাৎ স্বাস্থ্য মন্ত্রক ধর্মীয় স্থান থেকে বাজার পর্যন্ত এই পরীক্ষার গতিকে নিয়ে যেতে হবে বলে রাজ্যগুলিকে জানিয়েছে। জানা গিয়েছে যে এই নির্দেশ সোমবার রাজ্যগুলিকে দেওয়া হয়েছে। তুলনামূলকভাবে দীপাবলিতে নমুনা পরীক্ষা কম হয়েছে এবং সেই কারণে কেসের সংখ্যা সাময়িক ভাবে কমেছে।

সরকারি এক আধিকারিক জানাচ্ছেন যে প্রত্যেকের করোনা পরীক্ষা করার উদ্যোগ নিতে হবে। করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধ করার জন্য র্যান্ডাম পরীক্ষা করতে হবে। কেন্দ্রের এই পরামর্শ বাধ্যতামূলক নয় তবে কোথায় পরীক্ষা, কাদের পরীক্ষা, কত গতিতে পরীক্ষা এবং কিভাবে পরীক্ষার তহবিল গড়ে তোলা হবে ইত্যাদি এই সমস্ত বিষয় রাজ্যগুলিকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছেন যে মঙ্গলবার ভারতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাড়িয়েছে ৮৮ লক্ষ ৭৪ হাজার ২৯০। ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন আক্রান্তের সংখ্যা ২৯ হাজার ১৬৩ জন। বর্তমানে ভারতে ৪ লক্ষ ৫৩ হাজার ৪০১ জন সক্রিয় রোগী রয়েছেন। সক্রিয় রোগীর সংখ্যা গত ২৪ ঘণ্টায় ১২ হাজার ৭৭ কমেছে। দেশে এখন মোট রোগীর মধ্যে চিকিৎসা চলছে মাত্র ৫.১০ শতাংশের।

Advertisement

ট্রান্সমিশন সাইকেলের মাধ্যমে এই সংক্রমণে ছেদ ঘটাতে হবে বলে স্বাস্থ্য মন্ত্রকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। জায়গাটিএকবার ঠিক হয়ে গেলে সেখানকার সবাইকে করোনা পরীক্ষা করাতে হবে। পরীক্ষায় রিপোর্ট নেগেটিভ আসলে তাদের ১০ দিনের জন্য নজরে রাখতে হবে। কারুর উপসর্গ থাকলে বাধ্যতামূলকভাবে তাদের পরীক্ষা করতে হবে। বারবার পরীক্ষা করে জেনে নিতে হবে করোনার পজিটিভিটির হার । নীতি আয়োগের সদস্য (স্বাস্থ্য) চিকিৎসক ভিকে পাল জানান, ‘অনেক সময় দেখা যায় কাজের জায়গা থেকে সংক্রমণ বহন করে তা নিজের সম্প্রদায়ে ছড়িয়ে পড়ছে, আবার যেখানে বসবাস করা হচ্ছে সেখান থেকে সংক্রমণ বহন করে তা কাজের জায়গায় পৌঁছে যাচ্ছে। ফলে সুপার স্প্রেডার হয়ে যাচ্ছে।’

এই পরিস্থিতি যথেষ্ঠ ঝুঁকির হয়ে পড়তে পারে এবং সেই জন্য ন্যাশানাল সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোলের অধিকর্তা চিকিৎসক এসকে সিং জানান, ‘ঝুঁকিপূর্ণ এই পরিস্থিতিতে করোনার পরীক্ষা বাড়িয়ে দিতে হবে। রাজ্যগুলিকে উদ্যোগ নিতে হবে অতি–ঝুঁকিপ্রবণ এলাকাগুলিতে পরীক্ষা সম্প্রসারণ করা।’

Leave a Reply