দেশীয় অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে উৎপাদন ক্ষেত্রে ২ লাখ কোটির ইনসেনটিভ ঘোষণা কেন্দ্রীয় সরকারের

0
57

নিজস্ব সংবাদদাতা: করোনা আবহে লকডাউনের জেরে দেশের আর্থিক পরিস্থিতি তলানিতে ঠেকেছে, এখন আনলক প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার পর থেকে অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে একাধিক বিশেষ উদ্যোগ নিচ্ছে কেন্দ্র। এমতাবস্থায় বুধবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রীসভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে দেশের উৎপাদন শিল্প এবং রফতানিকে চাঙ্গা করতে ২ লাখ কোটি টাকার প্যাকেজ দেবে কেন্দ্র। পাশাপাশি, কঠিন বর্জ্য ব্যবস্থাপনা এবং জলের জোগানের মতো সামাজিক পরিকাঠামো ক্ষেত্রে বেসরকারি বিনিয়োগের জন্য ৮,১০০ কোটি টাকার একটি প্রকল্প চালু করা হয়েছে।

কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে, অত্যাধুনিক রাসায়নিক সেল ব্যাটারি, বৈদ্যুতিন বা প্রযুক্তিগত সরঞ্জাম, অটোমোবাইল ও গাড়ির সরঞ্জাম, ওষুধ, টেলিকম এবং নেটওয়ার্কিং পণ্য, বস্ত্র, খাদ্যদ্রব্য, উচ্চক্ষমতার সৌরযন্ত্র, শীততাপ নিয়ন্ত্রিত যন্ত্র-সহ বিভিন্ন পণ্য এবং বিশেষ ইস্পাত ক্ষেত্রে এই নয়া প্যাকেজের ঘোষণা করা হয়েছে।

এই প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন জানিয়েছেন, সামাজিক পরিকাঠামো ক্ষেত্রে বেসরকারি বিনিয়োগের জন্য যে প্রকল্পের ঘোষণা করা হয়েছে, তা ইতিমধ্যে আর্থিক এবং মূল পরিকাঠামো ক্ষেত্রে চালু আছে। এবার সামাজিক পরিকাঠামো ক্ষেত্রকেও সেই প্রকল্পের আওতায় আনা হয়েছে। অর্থমন্ত্রী আরও জানিয়েছেন যে মূলত দুটি ভাগে এই প্রকল্প চালু করা হচ্ছে। প্রথমত, জলের জোগান, স্বাস্থ্য-শিক্ষার মতো সামাজিক ক্ষেত্র এবং দ্বিতীয়ত, স্বাস্থ্য-শিক্ষার ক্ষেত্রে এই প্রকল্প সাহায্য করবে।

Advertisement

কেন্দ্রীয় মন্ত্রীসভার বৈঠকের পর প্রকাশ জাভড়েকর বলেন, “উৎপাদন বৃদ্ধি করতে, রফতানি চাঙ্গা করতে এবং কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরির জন্য ১০ টি গুরুত্বপূর্ণ উৎপাদন ক্ষেত্রে দু’লাখ কোটি টাকা উৎপাদন সংক্রান্ত বিশেষ ইনসেনটিভ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মোদী সরকার। আত্মনির্ভর ভারতের ক্ষেত্রে এই সিদ্ধান্ত অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।” তিনি আরও দাবি করেছেন যে এই নয়া প্রকল্পের ফলে বিশ্বের উৎপাদন ক্ষেত্রের হাব হিসেবে গড়ে উঠবে ভারত। শুধু তাই নয়, সামাজিক পরিকাঠামো ক্ষেত্রেও পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপ মডেলের পথও প্রশস্ত হবে।

 

Leave a Reply