ট্রেন চলাচল শুরু হতেই চোখে পড়ল বর্ধমান স্টেশনের ভিড়ে ঠাসাঠাসির সেই পরিচিত দৃশ্য

0
88

#বর্ধমান:    আজ থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছে ট্রেন চলাচল। ট্রেন চলাচল শুরু হতেই চোখে পড়ল বর্ধমান স্টেশনের ভিড়ে ঠাসাঠাসির সেই পরিচিত দৃশ্য। বর্ধমান স্টেশনের ফুট ওভার ব্রিজে ওঠার সিঁড়িতে যাত্রীদের ভিড় দেখে অবাক অনেকেই। তারা বলছেন,এভাবে চলতে থাকলে করোনার সংক্রমণ ব্যাপক আকার ধারণ করা এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা।

করোনা সংক্রমণের পরিস্থিতিতে লকডাউনের জেরে প্রায় সাড়ে সাত মাস বন্ধ থাকার পর বুধবার থেকে ফের শুরু হয়েছে লোকাল ট্রেন চলাচল। হাওড়া বর্ধমান কর্ড ও মেন শাখায় একুশ জোড়া লোকাল ট্রেন চলাচল করছে। ট্রেন চলাচলের সঙ্গে সঙ্গে যাতে করোনার সংক্রমণ যাতে না ছড়িয়ে পড়ে সে ব্যাপারে নানান সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিয়েছে রেল ও জেলা প্রশাসন। ট্রেনের মধ্যে বসার আসনে রাখা হয়েছে সামাজিক দূরত্ব। স্টেশনে ঢুকতে মুখে মাক্স লাগানো বাধ্যতামূলক করা হয়েছে চলছে যাত্রীদের থার্মাল স্ক্রীনিং খোলা হয়েছে আইসোলেশন রুম। তবে ভিড় দেখে যাত্রীরা বলছেন এসবের কিছুই করোনাকে রুখতে পারবে না।

ট্রেন চলাচল শুরুর প্রথম সকালে ট্রেনের ডেমরায় তাঁতিরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে একটি আসন বাদ দিয়ে দূরত্ব বজায় রেখে বসলেও, নামার সময় সকলেই গেটের সামনে ভিড় করছেন তাতে সামাজিক দূরত্ব বজায় থাকছে না। ফুট ওভারব্রিজে উঠছেন যাত্রীরা সেই ভূত ওভারব্রিজ দিয়ে ট্রেন ধরার জন্য নামছেন অনেকে তার ফলে ঠাসাঠাসি হচ্ছে ফুটওভার ব্রিজে। এভাবে করোনার সংক্রমণ ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। তারা বলছেন, ‘করোনা পজিটিভদের বেশিরভাগই উপসর্গহীন তাই নিজের অজান্তে যাত্রীদের অনেকেই করোনার সংক্রমণ নিয়ে চলছেন তাদের মাধ্যমে সংক্রমণ দ্রুত ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে আর এই ঠাসাঠাসি ভিড় থেকে সংক্রমণ খুব দ্রুত রাজ্য জুড়ে ছড়িয়ে পড়তে পারে।’  এই ভিড় নিয়ন্ত্রণ জরুরি বলেই মনে করছেন সচেতন বাসিন্দারা।

Advertisement

Leave a Reply