চিনের করোনা সংক্রমণের কথা প্রকাশ্যে আনায় পাঁচ বছরের কারাদণ্ড মহিলা সাংবাদিকের

0
100

#চিন:  যে করোনার ত্রাসে গোটা দেশ, সেই করোনা ভাইরাসের ঘটনা প্রকাশ্যে আনায় চিনে মহিলা সাংবাদিকের পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হল। যদিও বহু আগেই চিনের তরফে দাবি করা হয়েছিল, এই মহিলা সাংবাদিক নাকি ভুয়ো তথ্য ছড়িয়েছিল করোনা সংক্রমণের।

আর সেই দাবির প্রেক্ষিতেই রায় দেওয়া হল, ওই মহিলা সাংবাদিকের পাঁচ বছরের কারাদণ্ড হবে। এই সময়ের প্রতিবেদন সূত্রে জানা গেছে, “ধৃত সাংবাদিক ঝাং ঝান আগে ছিলেন আইনজীবী। আইনের পেশা ছেড়ে সাংবাদিকতার জগতে আসেন। উহানে করোনাভাইরাসের খবর করায়, কয়েক মাস আগেই তাঁকে আটক করেছিল চিনা প্রশাসন। তারপর থেকে বিগত ছ-মাস ধরে ওই মহিলা সাংবাদিক সাংহাইয়ে বন্দি রয়েছেন।”

অন্যদিকে চিন সরকার পক্ষের অভিযোগ, “উইচ্যাট, ট্যুইটার ও ইউটিউবকে কাজে লাগিয়ে লেখা ও ভিডিয়োর মাধ্যমে একাধিক সংবাদমাধ্যম-সহ বিভিন্ন জনের কাছে তথ্য সরবরাহ করেছেন।উহানকে কোভিড-১৯ মহামারীর হটস্পট হিসেবে তুলে ধরে ফ্রি রেডিয়ো এশিয়া ও ইপোক টাইমসকে সাক্ষাত্‍‌কারও দেন। এসবের প্রেক্ষিতেই ঝাং ঝানের বিরুদ্ধে কারাদণ্ডের রায় দেওয়া হয়েছে।”

Advertisement

চিনের মানবাধিকার সংগঠন চাইনিজ হিউম্যান রাইটস ডিফেন্ডার্স সূত্রে খবর, “ঝাং ঝানকে একা নয়, কোভিডের খবর করায় চিনে একাধিক সাংবাদিক গ্রেফতার হয়েছেন। ধৃতদের এবং তাঁদের পরিবারের উপর সরকারের তরফে যে হেনস্থার ঘটনা ঘটেছে, তা নিয়েও খবর করেছিলেন ঝাং ঝান। উইচ্যাট, ট্যুইটার, ইউটিউবের মতো সোশ্যাল মাধ্যমকে কাজে লাগিয়ে তা ছড়িয়ে দেন তিনি।
এর আগেও হংকং-এর আন্দোলনকারীদের নিয়ে খবর করায় এর আগে ২০১৮ সালেও একবার ঝাং ঝানকে গ্রেফতার করা হয়েছিল।”

Leave a Reply