ভরা বাজারে মহিলা কনস্টেবলের হাতে কষিয়ে থাপ্পড়, তারপর থানায় আটক, অপমানে আত্মঘাতী যুবক, রেখে গেল সুইসাইড নোট

0
89
ভরা বাজারে মহিলা কনস্টেবলের হাতে কষিয়ে থাপ্পড়, তারপর থানায় আটক, অপমানে আত্মঘাতী যুবক, রেখে গেল সুইসাইড নোট

#উত্তরপ্রদেশ, বাজারের মধ্যে এক মহিলা কনস্টেবলকে কটূক্তি করে এক যুবক। তার জেরে ভরা বাজারে অভিযুক্তকে কষিয়ে থাপ্পড় মারেন ওই মহিলা কনস্টেবল।এরপর পঁচিশের সেই যুবককে বেধড়ক ঠেঙায় ওই মহিলা কনস্টেবলের সঙ্গী এক পুলিশকর্মীও। এমনকি যুবককে থানায় আটকে রাখা হয়। শেষমেশ সকলের সামনে অপমানিত, লাঞ্চিত হয়ে আত্মহত্যার পথ বেঁচে নেয় যুবক।আত্মহত্যার আগে একটি সুইসাইড নোট লিখে যায়, সেখানে লেখা থাকে তার মৃত্যুর জন্য দায়ী ওই মহিলা কনস্টেবল ও তাঁর সঙ্গী। উত্তরপ্রদেশের সীতাপুরে হরগাঁও থানা এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে। পুলিশ পুরো ঘটনাটির তদন্ত করছে।

আত্মঘাতী ওই যুবকের নাম প্রভাস তিওয়ারি। বুধবার হরগাঁও মার্কেট এলাকার ঘটনাকে কেন্দ্রে করে মহিলা কনস্টেবল প্রভাসের বিরুদ্ধে ‘হেনস্থা’র অভিযোগও দায়ের করেছেন। যদিও মহিলা পুলিশকর্মী জানিয়েছেন, তাঁর উদ্দেশ্যে অশালীন মন্তব্য করেছিল ওই যুবক।তার পরিপেক্ষিতে তাকে সঠিক সাজা দিয়েছিলেন তিনি। হরগাঁও থানার পুলিশ স্বীকার করেন প্রভাস তিওয়ারিকে একদিন থানায় আটকে রাখা হয়েছিল। অন্যদিকে সুইসাইড নোটে যুবক লিখে যান, “তাঁর বিরুদ্ধে মিথ্যে হেনস্থার অভিযোগ এনেছেন ওই মহিলা কনস্টেবল ও তাঁর সঙ্গী পুলিশকর্মী। মিথ্যে অভিযোগে তাঁকে ‘অপদস্থ’ করা হয়”।

যুবকের কথা অনুযায়ী, সেদিন বাইকে চেপে তিনি বন্ধু যাচ্ছিলেন। মার্কেটের সামনে এক পরিচিতের সঙ্গে দেখা হলে, তখন তাঁকে লিফট দেওয়ার কথা বলেন। কিন্তু পাশে দাঁড়িয়ে থাকা ওই মহিলা কনস্টেবল ধরে নেন, তাঁকেই বাইকে লিফট দেওয়ার কথা বলেছেন ওই যুবক। প্রভাস লেখেন, যুবকের কোনও কথা না শুনে ওই কনস্টেবল বাইক দাঁড় করিয়ে তাঁকে চড়থাপ্পড় মারেন। উলটে তাঁর এক সঙ্গী পুলিশকর্মীও এসে যুবককে মারধর করেন। এরপর থানাতে তুলে এনেও আর একপ্রস্থ মারধর করা হয়েছে। সুইসাইড নোটে যুবক লিখেছেন, জীবনে এমন অপদস্থ এর আগে কখনও হইনি।অপমানিত যুবক শুক্রবার রাতে বাড়িতে বিষ পান করেন। তাকে জেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে, লখনউইয়ের কিং জর্জ’স মেডিক্যাল ইউনিভার্সিটি হাসপাতালে রেফার করা হয়। কিন্তু হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই মারা যায় প্রভাস তিওয়ারি।

Advertisement

Leave a Reply